ad720-90

সংঘর্ষের পর টেসলা গাড়িতে আগুন


দুর্ঘটনার সময়
গাড়িটি অটোপাইলট মোডে ছিলো কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে চালক অ্যালেক্সেই ট্রেটইয়াকভ বলেন এটি চালক সহায়তাকারী মোডে ছিলো। তবে চালকের হাত স্টিয়ারিং
হুইলেই ছিলো– খবর বার্তাসংস্থা রয়টার্সের।

নীতি নির্ধারকদের
সমালোচনার মুখে মডেল ৩-এর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে আত্মবিশ্বাসের কথা জানিয়েছে টেসলা।
তবে এক নথিতে দেখা গেছে প্রতিষ্ঠানের যানবাহনের দুর্ঘটনার বিষয়ে জানতে চেয়ে আগের বছর
অন্তত পাঁচবার তথ্য চেয়েছে নীতি নির্ধারকরা।

দুর্ঘটনার সময়
সর্বোচ্চ গতি সীমা ঘন্টায় ১০০ কিলোমিটার বেগে চলছিলো টেসলা গাড়িটি। এসময় রাস্তায় বাম
পাশে পার্ক করা একটি টানা ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় গাড়িটির। টেসলা চালক ওই ট্রাকটি
দেখতে পারেননি বলে দাবি করা হয়েছে।

এক ভিডিও ফুটেজে
দেখা গেছে সংঘর্ষের পর গাড়িতে আগুন লাগে এবং ঘন কালো ধোঁয়া বের হয়। অল্প সময়ের মধ্যে
ছোট দুইটি বিস্ফোরনও দেখা গেছে। আগুন লাগার পর গাড়ির শুধু ধাতব ফ্রেইমটি অবশিষ্ট ছিলো
বলে উল্লেখ করা হয়েছে প্রতিবেদনে।

আর্থিক বাজার
বিশেষজ্ঞ এবং বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান আরিকাপিটালের প্রধান ট্রেটইয়াকভ চালাচ্ছিলেন মডেল
৩ গাড়িটি। এতে তার পা ভেঙ্গেছে এবং তার দুই সন্তানের শুধু কিছুটা ক্ষত হয়েছে। তারা
সবাই গাড়ি থেকে পালাতে পেরেছিলেন বলা জানানো হয়েছে।

এবিষয়ে তাৎক্ষণিক
কোনো মন্তব্য করেনি বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা মার্কিন প্রতিষ্ঠানটি।





সর্বপ্রথম প্রকাশিত

Sharing is caring!

Comments

So empty here ... leave a comment!

Leave a Reply

Sidebar



istanbul escort