ad720-90

অনলাইনে গোপনীয়তার অধিকার নিয়ে আলোচনা হওয়া জরুরি


আর্টিকেল ১৯ আয়োজিত কর্মশালা। ছবি: সংগৃহীত।অনলাইনে নিজের পরিচয় গোপন রেখে লেখালেখির অধিকার থাকা জরুরি। তথ্যপ্রযুক্তির যুগে অ্যানোনিমিটি বা পরিচয় গোপন রাখা কষ্টকর হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনলাইনে যাঁরা লেখালেখি করেন, তাঁরা অযাচিত নজরদারির শিকার হচ্ছেন বলে মন্তব্য করছেন আর্টিকেল ১৯-এর বাংলাদেশ ও দক্ষিণ এশিয়া আঞ্চলিক পরিচালক তাহমিনা রহমান। প্রতিষ্ঠানটি বাক্‌স্বাধীনতা নিয়ে কাজ করে।

গতকাল শুক্রবার রাজধানীর ডেইলি স্টার মিলনায়তনে আর্টিকেল ১৯-এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় ‘রাইট টু অনলাইন অ্যানোনিমিটি’ শীর্ষক এক কর্মশালা। সেখানে এ মন্তব্য করেন তাহমিনা রহমান।

অনুষ্ঠানে অনলাইন কর্মী, তথ্যপ্রযুক্তি সাংবাদিক, আইনজীবী, বিশ্ববিদ্যালয়শিক্ষক, গবেষকসহ ৩০ জন উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুহাম্মদ মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দ্রুত পরিবর্তন এসেছে। অনলাইন কর্মীদের পরিচয় গোপন করার অধিকারের বিষয়টি আলোচনায় আসা জরুরি। কারণ, রাষ্ট্র যেখানে সব ক্ষেত্রে নজরদারি করছে, সেখানে আন্তর্জাতিক আইনের বিষয়গুলো ও অধিকারগুলো জানা থাকলে সবাই সচেতন থাকতে পারবেন।’ 

অনুষ্ঠানে অনলাইনে নাম-পরিচয় গোপন রেখে লেখালেখির অধিকার নিয়ে বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন আলোচকেরা। তাঁদের মতে, অনলাইনে যাঁরা কাজ করেন, তাঁদের অধিকার নিয়ে কথা বলার ও সচেতনতা তৈরির সময় এসেছে। অনেকেই নাম গোপন করে নিজের বাক্‌স্বাধীনতার চর্চা করতে চান। এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক কিছু নিয়মনীতি রয়েছে। রাষ্ট্রের কিছু দায়িত্ব রয়েছে।





সর্বপ্রথম প্রকাশিত

Sharing is caring!

Comments

So empty here ... leave a comment!

Leave a Reply

Sidebar



adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort sakarya travesti webmaster forum