ad720-90

যোগাযোগে সক্ষম পোশাক উদ্ভাবন করেছেন এমআইটির গবেষকেরা


যোগাযোগে সক্ষম পোশাকপরিধানযোগ্য প্রযুক্তিপণ্যের চাহিদা বাড়ছে। প্রযুক্তি গবেষকেরা এমন প্রযুক্তিপণ্য তৈরি করছেন, যা সহজে পরা যায়। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) গবেষকেরা পোশাক তৈরির এমন উপাদান তৈরি করছেন, যা অন্যান্য যন্ত্রের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবে।

গবেষকেদের দাবি, প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিকস যুক্ত করে একধরনের তন্তু বা ফাইবার তৈরি করা সম্ভব হয়েছে, যা যথেষ্ট নমনীয় এবং ফেব্রিকস হিসেবে বোনা যায়। এটি পানিতে ধোয়া সম্ভব। এ ফেব্রিকস নিয়ে পোশাক তৈরি করা যাবে। এতে উচ্চগতির অপটো ইলেকট্রনিক সেমিকন্ডাক্টর ডিভাইস, লাইট-এমিটিং ডায়োডস (এইলইডি), ডায়োড ফটোডিটেকটরস যুক্ত থাকে। এতে পোশাক অন্য ডিভাইসের সঙ্গে যোগাযোগ করতে সক্ষম হবে।

গবেষণাসংক্রান্ত নিবন্ধ নেচার সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে।

গবেষকেরা বলছেন, তাঁদের এই উদ্ভাবন পোশাকের ক্ষেত্রে ‘মুরস ল’ তৈরি করবে। অর্থাৎ ফাইবারের ক্ষেত্রে সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দ্রুত অগ্রগতি হবে। বোস্টনে এমআইটির গবেষকেরা এ কথা বলেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ইয়োল ফিঙ্ক বলেন, ফেব্রিকসের মৌলিক ক্ষমতা বাড়ছে। বিশেষ করে যোগাযোগ, আলো, মানসিক বিষয় পর্যবেক্ষণের মতো বিষয়গুলোর ক্ষেত্রে পোশাক কাজে লাগবে। ভবিষ্যতে পোশাক ব্যবহার করে বিভিন্ন ভ্যালু অ্যাডেড সেবা দেওয়া যাবে।

পোশাকে ফাইবার উপাদান যুক্ত করার ফলে তা পানিরোধী হবে। গবেষকেরা পরীক্ষা করে দেখেছেন, পানির নিচে কয়েক দিন টিকে থাকতে পারে এ পোশাক।





সর্বপ্রথম প্রকাশিত

Sharing is caring!

Comments

So empty here ... leave a comment!

Leave a Reply

Sidebar



adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort sakarya travesti webmaster forum