ad720-90

গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ৫ নারী এখন কারাগারে


Sunday, 19th August , 2018, 06:29 am,BDST

Print Friendly, PDF & Email


লাস্টনিউজবিডি, ১৯ আগস্ট, ঢাকা: ফেসবুকে উসকানিমূলক পোস্ট দিয়ে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ৫ নারী এখন কারাগারে রয়েছেন। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে গুজব ও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য ছড়িয়ে ধ্বংসাত্মক কার্যক্রমের উসকানি দেয়ার কারণে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার হওয়া নারীদের মধ্যে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ী ও মডেল রয়েছেন। ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ৪ আগস্ট থেকে ১৬ আগস্ট পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের আটক করা হয়।

ব্যবসায়ী ফারিয়া মাহজাবিন : গ্রেপ্তারকৃত ফারিয়া মাহজাবিন তিনদিনের রিমান্ডে রয়েছেন। ১৬ আগস্ট দিবাগত রাত পৌনে ১২টার দিকে রাজধানীর পশ্চিম ধানমন্ডি এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। পরে ১৭ আগস্ট ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট এ কে এম মঈন উদ্দিন সিদ্দিকীর আদালতে তাকে হাজির করা হয়। এসময় মাহজাবিনের ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ফারিয়া মাহজাবিন লেখাপড়া করেছেন নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে। ফারিয়া ধানমণ্ডি এলাকার একটি কফিশপের মালিক।

ছাত্রী লুৎফন নাহার লুনা : তথ্যপ্রযুক্তি আইনে করা মামলায় কোটা সংস্কার আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক লুৎফন নাহার সরকার লুনাকে (২১) গত ১৫ আগস্ট ভোরে সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার বড়ধুল ইউনিয়নের ক্ষিপ্রচাপড়ি গ্রামের দাদাবাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। লুনা ঢাকা ইডেন কলেজের ছাত্রী। তিনি বড়ধুল ইউনিয়নের ক্ষিপ্রচাপড়ি গ্রামের আবদুল কুদ্দুসের মেয়ে। গত বৃহস্পতিবার তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এসময় রাজধানীর রমনা থানায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে দায়ের করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। অপরদিকে লুনার আইনজীবী জায়েদুর রহমান রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম কাজী কামরুল ইসলাম জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

স্কুল শিক্ষিকা সোনিয়া : নিরাপদ সড়কের দাবিতে স্কুল শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলন নিয়ে ফেসবুকে বিভিন্ন উস্কানিমূলক পোস্ট এবং অপপ্রচার চালানোর অভিযোগে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় নুসরাত জাহান সোনিয়া (২৬) নামে এক স্কুল শিক্ষিকাকে কলাপাড়া থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। ৫ আগস্ট তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সোনিয়া উপজেলার দক্ষিণ টিয়াখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা এবং আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী। আটক শিক্ষিকা সোনিয়ার বিরুদ্ধে তথ্য প্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বিএনপি নেত্রী ফাতেমা বাদশা : নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনে উসকানি দেয়ার অভিযোগে বিএনপি নেত্রী ফাতেমা বাদশাকে আটক করে পুলিশ। ৩ আগস্ট শুক্রবার রাতে চট্টগ্রাম নগরীর ডবলমুরিং থানার সুপারিওয়ালা পাড়া থেকে তাকে আটক করা হয়। ফাতেমা বাদশা চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি।

অভিনেত্রী কাজী নওশাবা : ফেসবুক লাইভে ছাত্র মৃত্যুর গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ৪ আগস্ট রাতে রাজধানীর উত্তরা থেকে নওশাবাকে আটক করে র‌্যাব। তাকে এ নিয়ে দুই দফা রিমান্ডে নেয়া হয়। ৪ আগস্ট বিকালে ধানমণ্ডিতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দুর্বৃত্তের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনায় ফেসবুক লাইভে হাজির হয়েছিলেন ঢাকা অ্যাটাক ছবির অভিনেত্রী কাজী নওশাবা।

এদিকে উসকানি দেয়ার অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী তাসনিম আফরোজ ইমিকে ১৪ আগস্ট রাতে আটক করে পুলিশ। পরে মুচলেকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। ১৫ আগস্ট ডিএমপি জানায়, নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে সহিংসতা এবং সোস্যাল মিডিয়ায় উসকানি দেয়ার ঘটনায় ঢাকার বিভিন্ন থানায় মোট ৫১টি মামলা হয়েছে, গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৯৭ জনকে।

পূর্বে ধারণকৃত অডিও প্রচার করেছেন ফারিয়া, দাবি র‌্যাবের ধানমন্ডি থেকে আটক ব্যবসায়ী মাহজাবিন গুজব ছড়ানোর উদ্দেশ্যে পূর্বে ধারণকৃত অডিও প্রচার করেন বলে দাবি করেছে র‌্যাব।

গতকাল শনিবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের ডিজি বেনজীর আহমেদ বলেন, মাহজাবিন পূর্বে ধারণ করা একটি বিবৃতি অডিও ফাইল আকারে তৈরি করেছেন এবং সেটি ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রচার করেন। একজন কম্পিউটার সায়েন্সের গ্রাজুয়েট হিসেবে সেটি প্রচার করতে হয়। ফেসবুকের সহায়তায় উদ্দেশ্যমূলকভাবে তিনি এটি প্রচার করেন। র‌্যাবের ডিজি প্রশ্ন রেখে বলেন, এসব কী? এসব দেশকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যাওয়ায় অংশ। পরে বেনজীর নিজের মোবাইল থেকে ওই অডিও সাংবাদিকদের বাজিয়ে শোনান।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উস্কানিমূলক পোস্ট ও গুজব ছড়ানোর অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার রাতে ধানমন্ডির নার্ডি বিন কফি শপের মালিক মাহজাবিন ফারিয়াকে (২৮) আটক করে র‌্যাব। তার বিরুদ্ধে আইসিটি আইনের ৫৭ ধারায় মামলা করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email





সর্বপ্রথম প্রকাশিত

Sharing is caring!

Comments

So empty here ... leave a comment!

Leave a Reply

Sidebar



adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort sakarya travesti webmaster forum