ad720-90

‘আলিবাবার জন্য জ্যাক মা চিরদিন থাকবে’


জ্যাক মাবেশ কয়েক দিন ধরেই আলিবাবার প্রধান নির্বাহী জ্যাক মা সরে দাঁড়াচ্ছেন বলে গুঞ্জন ছিল। আজ সোমবার এক চিঠি লিখে বিষয়টি পরিষ্কার করেছেন তিনি। চিঠিতে বলেছেন, আলিবাবা ছেড়ে দিচ্ছেন তিনি। আলিবাবার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আলিবাবা বোর্ড অব চেয়ারম্যান পদে জ্যাক মার জায়গায় আসবেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড্যানিয়েল ঝাং। আগামী বছরের ১০ সেপ্টেম্বর দায়িত্ব নেবেন তিনি।

আলিবাবার এক বিবৃতিতে জানানো হয়, আগামী এক বছর নির্বাহী চেয়ারম্যান পদে দায়িত্ব চালিয়ে যাবেন মা। এ সময়ের মধ্যে ঝ্যাং তাঁর দায়িত্ব বুঝে নেবেন। অবশ্য ২০২০ সালের বার্ষিক শেয়ারহোল্ডারদের মিটিং পর্যন্ত আলিবাবা বোর্ডে থাকার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তিনি।

আলিবাবার গ্রাহক ও বিনিয়োগকারীদের কাছে লেখা চিঠিতে জ্যাক মা লিখেছেন, আলিবাবাতে পরিবর্তনের বিষয়টি দেখায় যে ব্যক্তিগত নির্ভরতার জায়গা থেকে আলিবাবা করপোরেট গভর্নেন্সের পরবর্তী পর্যায়ে পৌঁছেছে।

জ্যাক মা লিখেছেন, ‘আলিবাবা আলোকবর্তিকা ড্যানিয়েল ও তাঁর দলের হাতে পৌঁছে দেওয়ার বিষয়টি শুরু করতে পারে সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত। কারণ, তাদের সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে আমি দেখেছি যে তারা প্রস্তুত। আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের নেতৃত্বের ওপর পূর্ণ আস্থা রয়েছে।’

জ্যাক মা বলেছেন, আলিবাবা পার্টনারশিপে প্রতিষ্ঠাকালীন সহযোগী হিসেবে তাঁর ভূমিকা তিনি পালন করে যাবেন। আলিবাবা পার্টনারশিপ হচ্ছে ৩৬ জন জ্যেষ্ঠ নেতৃত্বের একটি দল, যারা প্রতিষ্ঠানটির লক্ষ্য, উদ্দেশ্য ও মূল্যবোধে বিশ্বাস করে।

জ্যাক মা তাঁর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে লিখেছেন, ‘আমি আবার শিক্ষার জগতে ফিরতে চাই। আমাকে এটা রোমাঞ্চিত করে। আমি এটা করতে ভালোবাসি।’

সংবাদমাধ্যম সিএনবিসিকে বাজার গবেষণা প্রতিষ্ঠান ডি এ ডেভিসন অ্যান্ড কোম্পানির বিশ্লেষক গিল লুরিয়া বলেছেন, মার জায়গায় ঝ্যাংকে বসানো আশ্চর্যের কিছু নয়। পাঁচ বছর আগে চেয়ারম্যান হয়েছিলেন তিনি। এখন তিনি ঝ্যাং, নির্বাহী ভাইস চেয়ারম্যান জো সাই, প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা ম্যাগি ইয়ু ও অন্যদের জন্য জায়গা করে দিচ্ছেন। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি সফলতার সঙ্গে আলিবাবা সামলেছেন। নিয়মতান্ত্রিক উপায়েই তিনি পদ ছেড়ে দিচ্ছেন।

লুরার মতে, জ্যাক মা সরে দাঁড়ালেও আলিবাবাতে খুব বেশি পরিবর্তন আসবে না। জ্যাক মা ছাড়া বিনিয়োগের বাইরে বিশ্বজগতের সঙ্গে তাদের যোগাযোগে পার্থক্য হবে সামান্যই। জ্যাক মা রঙিন ও ক্যারিশমাটির নেতা ছিলেন ওই যোগাযোগের বিষয়টি চলে যাবে। তবে আলিবাবার পরিকল্পনায় ব্যাপক পরিবর্তন আসবে না।

সাবেক ইংরেজি শিক্ষক জ্যাক মা ১৯৯৯ সালে আলিবাবা প্রতিষ্ঠা করেন। বর্তমানে তাঁকে চীনের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি বলে মনে করা হয়। ফোর্বসের তথ্য অনুযায়ী, তাঁর মোট সম্পদের পরিমাণ ৩ হাজার ৬৬০ কোটি মার্কিন ডলার। চীনের হ্যাংঝোতে ই-কমার্স মার্কেটপ্লেস হিসেবে যাত্রা শুরু করা আলিবাবা পরে অন্য ব্যবসাক্ষেত্রে সফল হয়। ২০১৩ সালে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার পদ থেকে সরে দাঁড়ান জ্যাক মা এবং জ্যাক মা ফাউন্ডেশনের অধীনে নানা দাতব্য কাজে সময় দিতে থাকেন।

গত সপ্তাহে নিউইয়র্ক টাইমসকে এক সাক্ষাৎকারে আলিবাবা থেকে সরে দাঁড়ানোর কথা বলেন জ্যাক মা। অবশ্য ৮ সেপ্টেম্বর আলিবাবার মালিকানাধীন সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টে আলিবাবার এক মুখপাত্র টাইমসের প্রতিবেদনটিকে সঠিক নয় বলে দাবি করেন।

বিদায়ী চিঠির শেষে আলিবাবার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা বলেছেন, ‘আমার প্রতিশ্রুতি, আলিবাবা কখনো জ্যাক মার জন্য ছিল না, কিন্তু জ্যাক মা চিরকাল আলিবাবার জন্য থাকবে।’





সর্বপ্রথম প্রকাশিত

Sharing is caring!

Comments

So empty here ... leave a comment!

Leave a Reply

Sidebar



adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort sakarya travesti webmaster forum