ad720-90

নিয়নবাতি [পর্ব-০৫] নিজেই বানান নিজের ফ্রি ইন্টারনেট আজীবন


শুনতে অবাক লাগছে না??!
ইন্টারনেট কি রুটি সমুচা যে চাইলেই আপনি ঘরে বসে বানাবেন?
আপনি বিশ্বাস করুন আর নাই করুন যিনি ইন্টারনেট কিংবা অনলাইন বিষয়ে খুবই তুখোড় তিনিই এই প্রশ্নটার সঠিক উত্তর দিতে প্রায়ই বিব্রত হবেন যে “ইন্টারনেট জিনিসটা আসলে কি?”

ইন্টারনেট এর প্রচলিত সংজ্ঞা বাদে আমি সহজবোধ্য বলছি যে “ইন্টারনেট মানে এক প্রকার জাল যাতে সকল অনলাইনের মাছ আটকা পড়ে” এখানে অনলাইনের মাছ হলো সেইসকল কম্পিউটার যা একে অপরের সাথে যুক্ত থাকে, মোদ্দাকথা ইন্টারনেট মানে একটা অদৃশ্য নেটওয়ার্ক।

নিজে নিজেই ইন্টারনেট তৈরী করুন:
আমি আপনাকে কোন ফাইবার টেকনোলজি শেখাচ্ছি না বরং আপনাকে একটা নেটওয়ার্ক তৈরী করার অনুপ্রাণন যোগাচ্ছি মাত্র। যেমনটা 87.5 Mhz – 108 Mhz এর এফএম তরঙ্গ কিন্তু এক প্রকার নেটওয়ার্ক, কিন্তু এখানে কনভারসেশন হয় one-to-us অর্থাৎ এমএম এর রেডিও জকি কথা বলে আমরা শুনি কিন্তু আমরা যা বলি সেটা কিন্তু জকি শুনতে পান না। কিন্তু ওয়াকিটকিতে কথা কথা হয় pair-to-pair যেখানে এটা একইসাথে গ্রাহক ও প্রেরক যন্ত্র।
আবার টেলিফোনও কিন্তু এমন নেটওয়ার্ক বটে তবে তাকে আর যাই হউক ওয়্যারলেস অন্তত বলা চলে না।

উফফফফ…এত্তোসব বকবক বাদ দিয়ে কাজের কথায় আসি।
আমাদের সবার মোবাইলেই Bluetooth এবং Wifi – Hotspot আছে যেটা কিন্তু এক প্রকার নেটওয়ার্ক সিস্টেম।
এই যে আপনি ফাইল ট্রান্সফার করেন ( তা হউক ব্লুটুথ কি শেয়ারইট তথা ওয়াফাই এর মাধ্যমে) এটাও এক প্রকার নেটওয়ার্ক কনভারসেশন। আপনি ডাটা এক মোবাইল হলে আরেক মোবাইলে ট্রান্সফার করার এই প্রসেসটিই এক প্রকার ক্ষুদ্রতর প্রাইভেট ইন্টারনেট।

ভাবছেন মজা করছি??? টাইটেলে বললাম কি আর শেখাচ্ছি আপনাকে ব্লুটুথ আর ওয়াইফাই!!

কিন্তু বিশ্বাস করুন এটাই নেটওয়ার্কিং এর একটি বাস্তব এবং খুউব সহজতর দৃষ্টান্ত এবার সেটাকে হেসে উড়াবেন নাকি আরেকটু জ্ঞানের স্রোতে ভাসবেন তা আপনার ব্যাপার।

ফ্রি চ্যাটিং, ফ্রি কল, ফ্রি ভিডিও কল!!
এইবার হয়তো একটু আপনার মনের মতোন সাবজেক্টে আসলাম তাইনা? আপনি FireChat এবং The Serval Mesh এপ্স হতে এমনি ফ্রি চ্যাটিং, ফ্রি কল, ফ্রি ভিডিও কল করতে পারবেন।
দুইটি মোবাইলে একই নেটওয়ার্কের আওতায় পরস্পর ওয়াইফাই-হটস্পট কিংবা ব্লুটুফ দ্বারা যুক্ত থাকলে তারা একে অপরের সাথে এমন চ্যাটিং,কলিং কনভারসেশন করতে পারবেন।
ডাউনলোড লিংক
ServalMesh → https://m.apkpure.com/the-serval-mesh/org.servalproject
FireChat→ https://m.apkpure.com/firechat/com.opengarden.firechat

এইটা তো আমি আগেই জানতাম তাহলে এতো প্যাচানোর দরকার কি ছিলো???
আপনার কি মনে হয় ইন্টারনেট খুব সহজ কিছু? সমুদ্র তলে কগো ফাইবার ক্যামনে প্যাচিয়ে প্যাচিয়ে যুক্ত সেটা ভাবুন তো একবার। এই সিম্পল লজিক নিয়েও আপনি লিজেন্ডারি কিছু করে ফেলতে পারেন তাইতো এমন ত্যানা প্যাঁচানো আরকি।

মোবাইলের ব্লুটুথ বা ওয়াইফাই-হটস্পট রেঞ্জ তো খুব কম তাহলে??
কিছু ডিভাইস আছে (সকল এনড্রোয়েডের বেলায় প্রযোজ্য না) তাতে ডিভাইসের ওয়াইফাই রেঞ্জ কিছুটা হলেও বাড়ে যা হতে আপনি উপকৃত হতে পারেন যেমন এনড্রোয়েড এডাপটর।
তবে আপনি চাইলে এমন একটি মিনি সার্কিট বানাতে পারেন যাতে আপনার ডিভাইসের ব্লুটুফ/ওয়াইফাই-হটস্পট রেঞ্জ বাড়ে এটা ফ্রিকোয়েন্সি বুস্টার এর মতোই স্ট্যাকচারাল সার্কিট হবে।

ধুর ধুর….মোবাইল খানা নষ্ট করবো নাকি?!
হুমম এটা আসলেই ভাবনার বিষয় আর সবসময় মোবাইলের সাথে তো আলাদা একটা যন্ত্রাংশ লাগিয়ে স্মার্ট হওয়া যায়না তাইনা?
তাই এমন ক্ষেত্রে আপনি নিজেই একটা টাওয়ার বানাতে পারেন ( হাসবেন না কিন্তু) যেখানে আপনার ডিভাইস এভাবে যুক্ত থাকবে Your Mobile →Wifi-Hotspot/ Bluetooth → Tower → Paired Device এখানে টাওয়ারটাই হলো সিগনাল বুস্টার( মূলত সিগন্যাল এমপ্লিফাই করে প্রেরন করে) এর মতোই কাজ করবে।

এমন আইডিয়া কি ভবিষ্যতে কোন মোটিভেশন হিসেবে কাজ করবে??
আফসোস এমনটা আমার প্রিয় বাংলাদেশ কোন কাজে লাগাবে না কেননা যেখানে আইটি বলতে IT মানে ইট বুঝি আর স্যাটেলাইট চড়িয়ে অন্য দেশকে আকাশ ভ্রমণ করায় সেখানে দারুন কিছু আশা করা পাপ!
তবে আশা করি ব্যক্তিগতভাবে এমন টেক ফিকশান আপনাকে ভবিষ্যতে একটু হলেও মোটিভেট করবে।

যাই হউক এই পোস্ট’টি নিতান্তই এক প্রকার টেক ফিকশান তাই হাসিতে যতোই বিদ্রুপ থাক সেটা মেনে নিতে আমি বাধ্য তবে আপনি যদি পোস্টের একটুকু অংশও বুঝতে সামর্থ্য হন( কিংবা বোঝাতে সামর্থ্য হই) তবেই আমি কৃতজ্ঞ

ধন্যবাদ





সর্বপ্রথম প্রকাশিত

Sharing is caring!

Comments

So empty here ... leave a comment!

Leave a Reply

Sidebar



adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort sakarya travesti webmaster forum