ad720-90

যা যা থাকছে অ্যাপলের নতুন আইফোনে


পুরো অনুষ্ঠানটি
অ্যাপর অনলাইনে সরাসরি সম্প্রচার করে।

এর সঙ্গে উন্মোচন
করা হয়েছে আইফোন Xএস ম্যাক্স নামের আরেকটি আইফোনও। এটি উন্মোচন করেন অ্যাপলের সিনিয়র
ভাইস প্রেসিডেন্ট ফিল শিলার।

নতুন এই দুই
আইফোনে রাখা হয়েছে ডুয়াল সিম সুবিধা। যুক্তরাষ্ট্র আর যুক্তরাজ্যে শুধু একটি সিম কার্ড
ট্রে-ই থাকছে, তবে ব্যবহারকারীরা বাড়তি একটি ই-সিম কার্ডের মাধ্যমে এই সুবিধা পাবেন।
আর চীনে এই আইফোনগুলো বিশেষভাবে দুই সিমের হোল্ডারযুক্ত করে আনা হবে। আইফোন Xএস ও আইফোন
Xএস ম্যাক্সের দাম শুরু হবে যথাক্রমে ৯৯৯ ডলার ও ১০৯৯ ডলার থেকে। 

গোল্ড, স্পেস গ্রে আর সিলভার রঙে আনা হয়েছে এই দুই আইফোন। ছবি: অ্যাপল

গোল্ড, স্পেস গ্রে আর সিলভার রঙে আনা হয়েছে এই দুই আইফোন। ছবি: অ্যাপল

আইফোন Xএস উন্মোচনের
সময় কুক বলেন, “আমরা আইফোন X-কে নতুন মাত্রায় নিয়ে যাচ্ছি। এখন আমি আপনাদেরকে আমাদের
এখন পর্যন্ত বানানো সবচেয়ে উন্নত আইফোন দেখাতে যাচ্ছি। এটি আইফোন Xএস।”

আইফোন Xএস-এ
রাখা হয়েছে ৫.৮ ইঞ্চির স্ক্রিন, আইফোন Xএস ম্যাক্সের ক্ষেত্রে তা ৬.৫ ইঞ্চি। উভয় আইফোনেই
রাখা হয়েছে নিউরাল ইঞ্জিনযুক্ত নতুন একটি এ২ বায়োনিক চিপ। এই প্রসেসর সেকেন্ডে ‘পাঁচ
ট্রিলিয়ন” ডেটা প্রসেস করতে পারে বলে জানান শিলার। এতে থাকা ৫১২জিবি স্টোরেজ দুই লাখ
ছবি সংরক্ষণের জন্য যথেষ্ট বলেও উল্লেখ করেন তিনি। 

আইফোন Xএস ম্যাক্স-এর ডিসপ্লেই এখন পর্যন্ত আইফোনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড়। ছবি: অ্যাপল

আইফোন Xএস ম্যাক্স-এর ডিসপ্লেই এখন পর্যন্ত আইফোনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড়। ছবি: অ্যাপল

এতে আনা নতুন
আইওএস ১২ অপারেটিং সিস্টেম আর এ২ বায়োনিক চিপ ব্যবহারকারীদের জন্য “নতুন প্রজন্মের
অ্যাপগুলো” ব্যবহারের সুযোগ করে দেবে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এই এ২ বায়োনিক চিপ
হচ্ছে স্মার্টফোনে ব্যবহার করা প্রথম ৭ ন্যানোমিটার চিপ, যার সঙ্গে রাখা হয়েছে নিউরাল
ইঞ্জিন, আগের চেয়ে দ্রুত ফেইস আইডি, বিস্তৃত স্টেরিও সাউন্ড। এই স্মার্টফোনদুটিতে রাখা
হয়েছে সুপার রেটিনা ডিসপ্লে, আগের চেয়ে দ্রুত ও উন্নত ডুয়াল ক্যামেরা ব্যবস্থা। ১৪
সেপ্টেম্বর থেকে আইফোন Xএস ও আইফোন Xএস ম্যাক্স-এর প্রি-অর্ডার শুরু হবে, আর দোকানে
কিনতে পাওয়া যাবে ২১ সেপ্টেম্বর থেকে। এ২ বায়োনিক
চিপ নতুন আইফোনদুটিতে এআরকিট আর বাস্তব সময়ের মেশিং লার্নিং প্রযুক্তি ব্যবহারে নতুন
প্রযুক্তি যোগ করেছে। এই প্রথম নিউরাল ইঞ্জিনকে কোর এমএল-এর জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া
হয়েছে, এর মাধ্যমে ডেভেলপাররা উচ্চদক্ষতার মেশিন লার্নিং ইঞ্জিন কাজে লাগিয়ে অ্যাপ
তৈরির সুযোগ পাবেন।

ফিলিপ শিলার
বলেন, “আইফোন Xএস নতুন প্রজন্মের নানা প্রযুক্তি দিয়ে সজ্জিত আর স্মার্টফোনের ভবিষ্যতের
দিকে আগাতে এটি একটি বড় ধাপ।” এ সময় এই আইফোনের উন্নত ডুয়াল ক্যামেরা ব্যবস্থা স্মার্ট
এইচডিআরে পোট্রেইট মোডের ছবি তুলতে সক্ষম বলে উল্লেখ করেন তিনি। ফটোগ্রাফির ক্ষেত্রে
আইফোনে আগে সম্ভব ছিল না এমন কিছু উদ্ভাবনী প্রযুক্তি আনা হয়েছে আইফোন Xএস-এ, এমনটাই
ভাষ্য টেক জায়ান্টটির। নিউরাল ইঞ্জিন, স্মার্ট এইচডিআর ব্যবহার করে এর মাধ্যমে হাই
ডায়নামিক রেঞ্জ প্রযুক্তি ব্যবহারের কারণে ‘গ্রেট ইমেইজ ডিটেইল সমৃদ্ধ’ ছবি তোলা সম্ভব
বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এর মাধ্যমে পোট্রেইট মোডে উন্নত ‘বোকেহ’ মানের ছবি তোলা
যাবে। ‘বোকেহ’ বলতে ছবির সাবজেক্টের সামনের ও পেছনের অন্যান্য দৃশ্য ঘোলাটে করে দেওয়াকে
বোঝায়।  ১২ মেগাপক্সিএল ডুয়াল ক্যামেরা ব্যবস্থায়
রাখা হয়েছে ডুয়াল অপটিক্যাল ইমেইজ স্ট্যাবিলাইজেশন ও ২এক্স অপটিক্যাল জুম, এতে আনা
হয়েছে নতুন এক সেন্সর যা আগের চেয়ে দ্বিগুণ দ্রুত কাজ করবে।

রাখা হয়েছে সুপার রেটিনা ডিসপ্লে। ছবি: অ্যাপল

রাখা হয়েছে সুপার রেটিনা ডিসপ্লে। ছবি: অ্যাপল

অ্যাপলের পক্ষ
থেকে বলা হয়, “আইফোন Xএস ও আইফোন Xএস ম্যাক্স সবচেয়ে উন্নতমানের ভিডিও ধারণক্ষমতা দেয়।
আগের চেয়ে বেশি পিক্সেল আর বড় ও দ্রুত সেন্সর কম আলোতে উন্নত পারফরম্যান্স ও ভিডিও
স্ট্যাবিলাইজেশন সেবা সেয়, সেইসঙ্গে ভিডিও মোডে আরও ভালোভাবে উজ্জ্বল ও ছায়া দেখাতে
সেকেন্ডে ৩০ ফ্রেইম পর্যন্ত বাড়রি ডায়নামিক রেঞ্জ দেয়। চারটি বিল্ট-ইন মাইক্রোফোন ব্যবহার
করে ব্যবহারকারীরা ভিডিও রেকর্ডিংয়ের সর্বোত্তম মান পেতে স্টেরিও সাউন্ডও রেকর্ড করতে
পারবেন।”

শিলার আরও বলেন,
“আইফোন Xএস একটি নয়, বরং দুটি নতুন আইফোন মডেল, আর এখন পর্যন্ত আইফোনগুলোর মধ্যে সবচেয়ে
বড় ব্যাটারি থাকা আইফোন Xএস ম্যাক্স-এ আইফোনের সবচেয়ে বড় ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে, এর ব্যাটারি
ব্যবহারকারীকে দিনে এখনকার আইফোনগুলোর তুলনায় দেড় ঘণ্টা বেশি সেবা দেবে।” আইফোন Xএস-এর
ব্যাটারির ক্ষেত্রে এই সেবা আগেরগুলোর তুলনায় আধা ঘণ্টা বেশি।

উন্নত হয়েছে পানিরোধী ক্ষমতা। ছবি: অ্যাপল

উন্নত হয়েছে পানিরোধী ক্ষমতা। ছবি: অ্যাপল

কোনো স্মার্টফোনের
নিরাপত্তায় চেহারা যাচাইয়ের ক্ষেত্রে অ্যাপলের আনা “সবচেয়ে সুরক্ষিত” ফেইস আইডি ব্যবস্থা
এখন আরও দ্রুত করা হয়েছে বলে অনুষ্ঠানে জানায় অ্যাপল। এতে আনা ট্রুডেপথ ক্যামেরা ব্যবস্থা
দ্বিমাত্রিক মুখ স্ক্যানারগুলোর সক্ষমতা আর নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে ছাপিয়ে যায়। এর মাধ্যমে
ব্যবহারকারীরা আইফোন আনলক, অ্যাপল পে ব্যবহার ও সুরক্ষিত অ্যাপগুলোতে প্রবেশ করতে পারবেন।

গোল্ড, স্পেস
গ্রে আর সিলভার রঙে আনা এই দুই স্মার্টফোনের সামনে ও পেছনে ব্যবহার করা হয়েছে গ্লাস।
উন্নত দাগরোধী সক্ষমতা থাকা এই গ্লাস এখন পর্যন্ত স্মার্টফোনগুলোতে ব্যবহার করা গ্লাসের
মধ্যে সবচেয়ে বেশি দীর্ঘস্থায়ী বলে দাবি অ্যাপলের। পেছনের গ্লাসটি দ্রুত তারবিহীন চার্জিং
ব্যবস্থা চালু করে।

পানিরোধী ক্ষমতার
ক্ষেত্রে এই আইফোনদুটি নতুন মাত্রা পেয়েছে বলে জানিয়েছে অ্যাপল। দুটিই ৩০ মিনিট ধরে
দুই মিটার গভীর পর্যন্ত পানিতে থাকতে সক্ষম, আর এখন শুধু পানি নয় এর সঙ্গে কফি, চা
ও সোডাও রোধ করতে সক্ষম।

উভয় আইফোনেই রাখা হয়েছে নিউরাল ইঞ্জিনযুক্ত নতুন এ২ বায়োনিক চিপ। ছবি: অ্যাপল

উভয় আইফোনেই রাখা হয়েছে নিউরাল ইঞ্জিনযুক্ত নতুন এ২ বায়োনিক চিপ। ছবি: অ্যাপল

নতুন প্রজন্মের
প্রসেসর, বাড়তি স্টোরেজ আর অন্যান্য উন্নত প্রযুক্তি মিলিয়ে আইফোন Xএস আর আইফোন Xএস
ম্যাক্সে গেইম, ফটোগ্রাফি, ভিডিও এডিটিং আর গ্রাফিক্স-ইনটেনসিচ অ্যাপ ব্যবহারে নতুন
অভিজ্ঞতা পাবেন ব্যবহারকারীরা, এমনটাই বলা হয়েছে আপ্যলের পক্ষ থেকে। 

১২ মেগাপক্সিএল ডুয়াল ক্যামেরা ব্যবস্থায় রাখা হয়েছে ডুয়াল অপটিক্যাল ইমেইজ স্ট্যাবিলাইজেশন ও ২এক্স অপটিক্যাল জুম। ছবি: অ্যাপল

১২ মেগাপক্সিএল ডুয়াল ক্যামেরা ব্যবস্থায় রাখা হয়েছে ডুয়াল অপটিক্যাল ইমেইজ স্ট্যাবিলাইজেশন ও ২এক্স অপটিক্যাল জুম। ছবি: অ্যাপল

উন্নত ডুয়াল ক্যামেরা ব্যবস্থা স্মার্ট এইচডিআরে পোট্রেইট মোডের ছবি তুলতে সক্ষম। ছবি: অ্যাপল

উন্নত ডুয়াল ক্যামেরা ব্যবস্থা স্মার্ট এইচডিআরে পোট্রেইট মোডের ছবি তুলতে সক্ষম। ছবি: অ্যাপল

আইফোন Xএস ও
আইফোন Xএস ম্যাক্সে “বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম” আইওএস ১২ এনেছে
অ্যাপল। এতে নতুন এআর ফিচার উন্মোচন করা হয়েছে, যা ব্যবহারকারীদেরকে ছবি শেয়ার, আর
যোগাযোগে নতুন অভিজ্ঞতা দেবে। সেইসঙ্গে ব্যবহারকারীরা নতুন অ্যানিমোজি আর মিমোজি-এর
মাধ্যমে আরও বেশি আনন্দ শেয়ারের সুযোগ পাবেন। এতে থাকা স্ক্রিন টাইম ফিচার গ্রাহকদেরকে
আইওএস ডিভাইসে তারা কত সময় ব্যয় করছেন তা বুঝতে ও নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করবে। এর সিরি
শর্টকাটস ফিচার যে কোনো অ্যাপকে সিরির সঙ্গে কাজ করার সক্ষমতা দেয়। এই সংস্করণে আনা
নতুন প্রাইভেসি ফিচার ব্যবহারকারীদেরকে ওয়েবে নজরদারির মধ্যে পড়া থেকে সুরক্ষা দেবে
বলে জানিয়েছে অ্যাপল।





সর্বপ্রথম প্রকাশিত

Sharing is caring!

Comments

So empty here ... leave a comment!

Leave a Reply

Sidebar



adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort sakarya travesti webmaster forum