ad720-90

গো-জ্যাকের লক্ষ্য দুইশ’ কোটি ডলার


গো-জ্যাক
এর মূল প্রতিদ্বন্দ্বী সিঙ্গাপুরভিত্তিক গ্র্যাব নিজেদেরকে একটি ভোক্তা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানে
পরিণত করার লক্ষ্যে তহবিল সংগ্রহ করছে ও ইন্দোনেশিয়ায় আগ্রাসীভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। এরপরই
গো-জ্যাক এর এই তহবিল সংগ্রহের পদক্ষেপ এলো।

দক্ষিণপূর্ব
এশিয়ায় আধিপত্য বিস্তারে লাখ লাখ ডলার বিনিয়োগ আর শত শত কোটি ডলার সংগ্রহ করছে গো-জ্যাক
ও গ্র্যাব।  

২০১১
সালে ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় যাত্রা শুর করা গো-জ্যাক স্থানীয় ‘মোটরবাইক ট্যাক্সি’
সেবায় বড় ভূমিকা রেখেছে। একটি রাইড-হেইলিং সেবাকে তারা এমন একটি অ্যাপভিত্তিক সেবায়
নিয়ে এসেছে যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা খাবার ও অন্যান্য পণ্য অর্ডার আর লেনদেন করতে
পারেন।

রাইড
হেইলিং সেবাদাতা মার্কিন প্রতিষ্ঠান উবার তাদের দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার ব্যবসায়ের কার্যক্রম
গ্র্যাবের কাছে বিক্রির পর চলতি বছর মে মাসে গো-জ্যাক জানায়, ভিয়েতনাম, সিঙ্গাপুর,
থাইল্যান্ড আর ফিলিপিন্সে প্রবেশ করতে তারা ৫০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে। 

টেনসেন্ট
হোল্ডিংস লিমিটেড ও জেডি ডটকমসহ  বর্তমান বিনিয়োগকারীদের
কাছ থেকে নতুন অর্থ সংগ্রহ চলতি বছরের শেষে সম্পন্ন হবে বলে জানিয়েছে রয়টার্স-এর ওই
সূত্র। তবে এ নিয়ে গো-জ্যাক আর জেডি ডটকম কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি প্রকাশ করেছে।
আর টেনসেন্ট এ নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো সাড়া দেয়নি। 

২০১৭
সালের নভেম্বরে বাংলাদেশে রাইড হেইলিং সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান পাঠাও-এ গো-জ্যাক ২০ লাখ
ডলার বিনিয়োগ করেছে বলে খবর বের হয়। সে সময় বিপণন ব্যবস্থাপক সৈয়দা নাবিলা মাহবুব বিডিনিউজ
টোয়েন্টিফোর ডটকম-কে বলেন, “এই তথ্য নিয়ে গোপনীয়তা ও স্পর্শকাতরতা থাকার কারণে, এই
মূহুর্তে আমাদের এ নিয়ে কিছু বলার সুযোগ নেই।” 





সর্বপ্রথম প্রকাশিত

Sharing is caring!

Comments

So empty here ... leave a comment!

Leave a Reply

Sidebar



adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort sakarya travesti webmaster forum