ad720-90

অতঃপর চেয়ারম্যান পদ হারাচ্ছেন মাস্ক


মাস্কের বিরুদ্ধে আনা জালিয়াতির মামলা মীমাংসা করতে মার্কিন নীতি নির্ধারকদেরকে টেসলা ও মাস্কের পক্ষ থেকে আলাদাভাবে দুই কোটি মার্কিন ডলার করে মোট চার কোটি ডলার দিতে হবে। এর পাশাপাশি বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা মার্কিন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান পদ ছাড়তে হচ্ছে তাকে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটির সিইও হিসেবে দায়িত্ব চালিয়ে যেতে পারবেন মাস্ক– খবর রয়টার্স-এর।

শনিবার জালিয়াতি বিষয়ে সিদ্ধান্ত প্রকাশ করেছে মার্কিন সিকিউরিটিস অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)। এতে কিছুটা স্বস্তি পাবেন টেসলার বিনিয়োগকারীরা। তাদের ধারণা ছিল মামলাটি দীর্ঘমেয়াদী হবে। ফলে লোকসানের মধ্যে থাকা প্রতিষ্ঠানটি আরও ক্ষতির মুখে পড়বে বলে আশঙ্কা ছিল।

বৃহস্পতিবার মাস্কের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ আনে এসইসি। অগাস্টের ৭ তারিখ টুইট বার্তার মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের বিভ্রান্ত করার দায়ে তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। টুইটে মাস্ক বলেন ৪২০ মার্কিন ডলার শেয়ার মূল্যে টেসলাকে প্রাইভেট করা হচ্ছে এবং এজন্য তহবিল সংগ্রহ হয়েছে। এসইসি’র দাবি এই টুইটের কোনো ভিত্তি নেই এবং এতে সৃষ্ট বিশৃংখলায় বিনিয়োগকারীদের ক্ষতি হয়েছে।

মামলা মীমাংসা হওয়ায় বিনিয়োগকারী ও কর্পোরেট গভার্নেন্স বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন এই চুক্তি টেসলাকে আরও মজবুত করতে পারে। মাস্কের সাম্প্রতিক কিছু আচরণের কারণেই এমনটা মনে করা হচ্ছে। সম্প্রতি গাঁজা সেবন ও টুইটারে ব্রিটিশ উদ্ধারকারী ডুবুরিকে আক্রমণ করায় সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি।

চুক্তি অনুযায়ী একজন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান ও দুইজন স্বতন্ত্র পরিচালক নিয়োগ দিতে হবে টেসলাকে। আর মাস্কের যোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ করতে একটি বোর্ড কমিটিও গঠন করতে বলা হয়েছে।

এক বিবৃতিতে এসইসি চেয়ারম্যান জে ক্লেটন বলেন, “বাজার ও বিনিয়োগকারীদেরকে সবচেয়ে ভালো সুবিধা দিতে এই চুক্তির শর্ত মেনে নেওয়াই ভালো সমাধান।”

বৃহস্পতিবারের মামলার কারণে টেসলার ক্ষতি হচ্ছে ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার। এতে শুক্রবার প্রতিষ্ঠানের বাজার মূল্য কমে দাঁড়ায় ৪৫২০ কোটি মার্কিন ডলারে।

মাস্কের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার সময় তাকে প্রতিষ্ঠান প্রধানের পদ থেকে সরানোর দাবি করেছিল এসইসি। অনেক বিনিয়োগকারী এই সিদ্ধান্তকে প্রতিষ্ঠানের জন্য ধ্বংসাত্মক হবে মনে করায় পরে এই দাবি থেকে সরে এসেছে সংস্থাটি।

টাইগ্রেস ফিনান্সিয়াল পার্টনারস-এর ইভান ফেইনসেথ বলেন, “আমি মনে করি সংশ্লিষ্ট সবার জন্য এটিই সম্ভাব্য সবচেয়ে ভালো সমাধান।”

এসইসি’র এই শাস্তিকে মাস্কের জন্য “কব্জিতে হালকা চড় দেওয়ার” মতো মনে করেন ফেইনসেথ।

“বিষয়টা হচ্ছে তিনি প্রধান নির্বাহী থাকতে পারবেন, যা প্রতিষ্ঠানের জন্য গুরুত্বপূর্ণ,” যোগ করেন তিনি।

মামলা মীমাংসায় এসইসি’র শর্তগুলো স্বীকার বা অস্বীকার কোনোটাই করেনি মাস্ক বা টেসলা কেউই। এখনও এতে আদালতের অনুমোদন লাগবে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করেনি টেসলা বা ইলন মাস্ক।

টেসলার প্রায় সব পণ্য নকশা ও প্রযুক্তি কৌশলে সরাসরি যুক্ত থাকেন মাস্ক। প্রতিষ্ঠানটির কর্মীদেরকে অসাধারণ অর্জনের দিকে নিয়ে যান, এর মাত্রা এতোটা যে তার এই পরিচালনাকে অ্যাপলের সাবেক প্রধান স্টিভ জবস-এর সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে রয়টার্স-এর প্রতিবেদনে।

নানা উদ্ভাবনী ধারণা দেওয়ার কারণে সুপরিচিত এই উদ্যোক্তাকে এখন ৪৫ দিনের মধ্যে টেসলা চেয়ারম্যান পদ থেকে সরে আসতে হবে। সামনের তিন বছরের জন্য তিনি এই পদে পুনঃনির্বাচিতও হতে পারবেন না।

টেসলার বিরুদ্ধে তথ্য প্রকাশের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নিয়ন্ত্রণ আর মাস্ক-এর টুইট প্রক্রিয়া নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগ এনেছে এসইসি। এসইসি’র পক্ষ থেকে বলা হয়, মাস্ক-এর টুইটে যেসব তথ্য দেওয়া হবে তা প্রাতিষ্ঠানিকে নথিতে অবশ্যই থাকবে কিনা বা এই টুইটগুলোতে সম্পূর্ণ ও সঠিক তথ্য থাকে কিনা তা যাচাই করার কোনো পথ প্রতিষ্ঠানটির হাতে নেই।

শুক্রবার বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, এর আগে এসইসি’র সঙ্গে একটি মীমাংসার শেষ মূহুর্তে মাস্ক সরে আসেন। ওই মীমাংসায় তাকে দুই বছর প্রতিষ্ঠানটির বিশেষ কিছু দায়িত্ব থেকে সরে যেতে ও নামমাত্র জরিমানা পরিশোধ করতে বলা হয়েছিল। শুক্রবার রয়টার্স-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, মাস্ক এসইসি’র সঙ্গে ওই মীমাংসা করতে পারতেন কিন্তু তিনি আদালতে লড়াইয়ের জন্য তৈরি ছিলেন। এদিন বিনিয়োগকারীরার বলেন, এই মীমাংসা না হতে দেওয়া মাস্ক-এর একটি ভুল ছিল। বিশেষত এমন একটি সময়ে মাস্ক এমন ঝামেলায় পড়লেন যে সময় প্রতিষ্ঠানটি তাদের মডেল ৩ সেডান গাড়ির উৎপাদন বাড়াতে জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।

এই মীমাংসার ফলে স্বাধীন এই পদে অন্য কাউকে বসাতে হচ্ছে টেসলা পরিচালনা পর্ষদকে, যা তাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং-ই বটে। এ পদে আনা নতুন ব্যক্তিকে এমন এক প্রধান নির্বাহীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে হবে যিনি মাঝেমধ্যেই অপ্রত্যাশিত কিছু করে বসেন।

এই পদে কাকে আনা হবে তা এখনও স্পষ্ট নয়। বর্তমানে শীর্ষ স্বাধীন পরিচালক আর ভ্যালোর ইকুইটি পার্টনারস-এর প্রধান নির্বাহী অ্যান্তোনিও গ্র্যাসিয়াস-এর সঙ্গে মাস্ক ও টেসলার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক থাকা নিয়ে সমালোচনা রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয় প্রতিবেদনে।  





সর্বপ্রথম প্রকাশিত

Sharing is caring!

Comments

So empty here ... leave a comment!

Leave a Reply

Sidebar




Windows 10 Kaufen Windows 10 Pro Office 2019 Kaufen Office 365 Lizenz Windows 10 Home Lizenz Office 2019 Home Business Kaufen Windows 10 Lisans Office 2019 Mac Satın Al