ad720-90

বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রমের ঘোষণা দিয়েছে শাওমি


শাওমির ভারতীয় কার্যক্রমের প্রধান মানু কুমার জেইন। ছবি: সংগৃহীত।দেশের বাজারে এস২ মডেলের স্মার্টফোনের ঘোষণা দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করল শাওমি। গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিকভাবে চীনের প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান শাওমি তাদের কার্যক্রমের ঘোষণা দেয়। এত দিন দেশে পরিবেশক প্রতিষ্ঠান দিয়ে কার্যক্রম চালাচ্ছিল প্রতিষ্ঠানটি। এবার বাংলাদেশে নিজস্ব অফিস খোলার এবং ধাপে ধাপে বাংলাদেশে স্মার্টফোন উৎপাদনের দিকে যাওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। শাওমির ভারতীয় কার্যক্রমের প্রধান মানু কুমার জেইন প্রথম আলোকে এ তথ্য জানান।

মানু বলেন, ‘বাংলাদেশে শাওমির আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হলো। কয়েক প্রান্তিকজুড়ে স্মার্টফোনসহ নানা ধরনের প্রযুক্তিপণ্য বিপণন করা হবে। শুরু হলো এক নতুন অধ্যায়। বাংলাদেশের বাজার আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমরা বিশেষ নজরে রেখেই দেশের গ্রাহকদের জন্য সব ধরনের পণ্য, সেবা ও অন্যান্য সব সুবিধা নিয়ে আসছি। এরপর ধীরে ধীরে বাজার বুঝে স্মার্টফোন উৎপাদনসহ অন্যান্য প্রযুক্তিপণ্য উন্মুক্ত করা হবে। নতুন কার্যক্রম শুরুর ফলে প্রতিযোগিতামূলক দামে ওয়ারেন্টিসহ স্মার্টফোন পাবেন বাংলাদেশি ক্রেতারা। আমাদের লক্ষ্য, দেশের সব গ্রাহক যেন সাশ্রয়ী দামে উন্নত ফিচারের স্মার্টফোন ব্যবহার করতে পারেন, সেদিকে। এত দিন দেশে সোলার ইলেকট্রো বাংলাদেশ লিমিটেডের (এসআইবিএল) মাধ্যমে ব্যবসা করে এলেও এখন থেকে তাদের সঙ্গে সমন্বয় করে সরাসরি শাওমি ব্যবসা করবে।’

স্মার্টফোনের দাম সম্পর্কে মানু জানান, ভারত ও চীনের তুলনায় বাংলাদেশে ট্যাক্স তুলনামূলকভাবে বেশি। তাই গ্রে চ্যানেলের দিকে ক্রেতারা ঝুঁকে পড়েন। এদিকে নজর দিলে স্মার্টফোনের দাম আরও কমবে। এত দিন শাওমি লোকাল ডিস্ট্রিবিউটরের মাধ্যমে স্মার্টফোন বিক্রি করত বলে দাম কিছু বেশি পড়ত। এখন থেকে আন্তর্জাতিক বাজারের মতো দামে পাওয়া যাবে শাওমির সব ডিভাইস।

বাংলাদেশে স্মার্টফোন উৎপাদন সম্পর্কে মানু বলেন, ‘কাজটি করতে সময়ের প্রয়োজন। ভারতের কার্যক্রম শুরুর কয়েক বছর পরে উৎপাদন পর্যায়ে যেতে পেরেছি। বাংলাদেশে কেবল কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। আমাদের ইচ্ছা আছে বাংলাদেশকে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করার। বাংলাদেশে স্থানীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে শাওমিকে গড়ে তোলা হবে। এখানকার জনবল নিয়োগ হবে। এ ছাড়া স্থানীয়ভাবে গবেষণা করে বিভিন্ন অ্যাপ কাস্টোমাইজ করা হবে। বাংলাদেশের ই-কমার্স খাতটিকেও গুরুত্ব দেওয়া হবে।’

শাওমির নতুন স্মার্টফোন সম্পর্কে শাওমির কর্মকর্তা জানান, সেলফির জন্য বিশেষভাবে তৈরি এই ফোনে রয়েছে এআই সুবিধা। সামনে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে, যা দিনের আলো বিশ্লেষণ করে ছবি তুলতে সক্ষম। ফোনটিতে রয়েছে পেছনে ডুয়েল ক্যামেরা। এর একটি ১২ এবং অন্যটি ৫ মেগাপিক্সেলের। রয়েছে পোর্ট্রেট মোড এবং এআই বিউটিফাই সমর্থন। রেডমি এস২ ফোনের ৫ দশমিক ৯৯ ইঞ্চির ফুল স্ক্রিন ডিসপ্লে। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬২৫ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। ৩ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি রম এবং ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি রমের দুটি সংস্করণে বাজারে ছাড়ছে ফোনটি। এর দাম যথাক্রমে ১৪ হাজার ৯৯৯ টাকা এবং ১৭ হাজার ৯৯৯ টাকা।

২৬ জুলাই থেকে অনলাইন স্টোর দারাজে পাওয়া যাবে ফোনটি। ‘রেডমি এস২’ মডেলের ফোনটি আপাতত অনলাইন স্টোরে পাওয়া যাবে। তবে সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যে অফলাইনেও পাওয়া যাবে। ভিসা কার্ডসহ কয়েকটি কার্ডের মাধ্যমে ১০ শতাংশ ছাড়ে কেনা যাবে। এ ছাড়া সুদবিহীন ইএমআই সুবিধাতেও কেনা যাবে ফোনটি। ফোনগুলোতে এক বছরের ওয়ারেন্টি সেবা পাবেন গ্রাহকেরা।





সর্বপ্রথম প্রকাশিত

Sharing is caring!

Comments

So empty here ... leave a comment!

Leave a Reply

Sidebar



adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort adapazarı escort sakarya travesti webmaster forum